যেভাবে হ্যাকিং থেকে সোশ্যাল মিডিয়া নিরাপদ রাখবেন

391
social media security

হ্যাকিং এর মূল উদ্দেশ্য হচ্ছে বিভিন্ন ধরণের ইনফরমেশন বা তথ্য হাতিয়ে নেওয়া। সেই তথ্য বা ইনফরমেশন হতে পারে রাষ্ট্রীয়, হতে পারে ব্যক্তিগত বা জাতিগত। আর আমরা আমাদের ব্যক্তিগত বিভিন্ন তথ্য সোশ্যাল মিডিয়াতে সচারচর দিয়ে থাকি। কোনো হ্যাকার যখন কাউকে টার্গেট করে, প্রথমেই সেই টার্গেটের বিভিন্ন সাধারন তথ্য নিয়ে এনালাইসিস করে থাকে। আর হ্যাকারের এনালাইসিসের জন্য প্রথম পছন্দ হচ্ছে সোশ্যাল মিডিয়ার সাইট সমূহ। কেননা আমরা এই সাইট সমূহে আমাদের ব্যক্তিগত তথ্যসমূহ সরবরাহ করে থাকি যেমন- নাম, জন্মসাল, ঠিকানা, ব্যক্তিগত ছবি, প্রাইভেট মূহুর্ত, কোথায় আছি, কি করছি, জাতীয় পরিচয়পত্রের ছবি এমনকি পাসপোর্টের কপিও আপলোড দিয়ে থাকি, যেগুলা একজন হ্যাকারের জন্য ঈদ লাগার মত আনন্দের ব্যাপার।

সোশ্যাল মিডিয়া

পৃথিবীর মোট জনসংখ্যার 49% জনগণ সোশ্যাল মিডিয়া ব্যবহার করে, অর্থাৎ 3.8 বিলিয়ন একটিভ ব্যবহারকারী রয়েছে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমগুলোতে। বেশিরভাগ সামাজিক মাধ্যম গুলো অল্প বয়স্ক লোকেরা ব্যবহারের অনুমতি পায় না। তবে যারা এই মাধ্যমগুলো ব্যবহার করে তাদের এভারেজ ব্যবহারকারীর মিনিমাম ৮টি বিভিন্ন সামাজিক মাধ্যমে একাউন্ট রয়েছে, যেখানে তারা দিনে প্রায়ই ২ ঘন্টা ২৪ মিনিটের বেশি সময় ব্যয় করে থাকে।

ডাটা রিপোর্টালের তথ্য অনুযায়ী, ফেইসবুকে প্রতিমাসে একটিভ ইউজার রয়েছে 2.45 billion, ইউটিউবে রয়েছে 2.00 billion, হোয়াটসআপে রয়েছে 1.60 billion, মেসেঞ্জারে রয়েছে 1.30 billion, চীনের উইচ্যাটে রয়েছে 1.15 billion, ইন্সট্রাগ্রামে রয়েছে 1 billion, টিকটকে রয়েছে 800 million, কিউকিউ তে রয়েছে 731 million, টুইটারে রয়েছে 340 million।

বিভিন্ন জনপ্রিয় সোশ্যাল মিডিয়া

সোশ্যাল মিডিয়ায় নিরাপত্তা

  • Uppercase, Lowercase, Numbers, Special Character ব্যবহার করে শক্তিশালী পাসওয়ার্ড ব্যবহার করা
  • প্রতিটা সোশ্যাল একাউন্টে আলাদা আলাদা পাসওয়ার্ড ব্যবহার করা
  • যে সকল সোশ্যাল মিডিয়াতে security answers অপশন রয়েছে, সেগুলো ব্যবহার করা
  • প্রতিটা একাউন্টে Mail Recovery অপশন ব্যবহার করা
  • সোশ্যাল মিডিয়াতে পিশিং সাইট গুলো সবচেয়ে বেশি ছড়ানো থাকে তাই অপরিচিত যেকোনো সাইটের লিংকে ক্লিক করা থেকে বিরত থাকা
  • আপনার সেনসিটিভ ব্যক্তিগত তথ্য শেয়ার করা থেকে অবশ্যই বিরত থাকুন
  • থার্ড পার্টি কোনো সাইটে আপনার সোশ্যাল ক্রিডেনশিয়াল ব্যবহার করবেন না
  • আপনার সোশ্যাল মিডিয়া সাইটের পাসওয়ার্ড কোনো অবস্থাতেই কাউকে দেওয়া থেকে বিরত থাকুন
  • সোশ্যাল মিডিয়াতে অনেক সময় বিভিন্ন কুইজ ও গেমসে আপনার সোশ্যাল একাউন্টের লগিন এক্সেস চাইলে এইগুলা পরিহার করুন
  • আপনার যদি কোনো অপ্রাপ্ত বয়স্ক সন্তান সোশ্যাল সাইট ব্যবহার করে, তাহলে সেই একাউন্ট গুলোর প্রতি বিশেষ লক্ষ্য রাখুন
  • বিভিন্ন সময় অনেক মেসেজ ফরওয়ার্ড করতে বলা হলে এইগুলা পরিহার করুন
  • সোশ্যাল মিডিয়াতে কারো ফ্রেন্ড রিকুয়েস্ট এক্সসেপ্ট করার সময় সতর্ক থাকুন
  • সোশ্যাল মিডিয়াতে আপনার লোকেশন শেয়ার করা থেকে বিরত থাকুন
  • সবসময় আপডেট সফটওয়্যার বা এপ্লিকেশন ব্যবহার করুন
  • অপরিচিত ফ্রি Wi-Fi ব্যবহার করা থেকে বিরত থাকুন
  • আপনার পরিবার ও সন্তানদের সোশ্যাল মিডিয়া ব্যবহারে সচেতন করে তুলুন
  • কেউ কোনো ভাবে সোশ্যাল মিডিয়ায় আক্রান্ত হলে প্রয়োজনে আইনের সহায়তা নিন

 লেখকঃ MD Sazibur Rahman Sajib